লিটনকে হত্যা করেছে জামায়াত-শিবির : নানক

liton-has-killed-jamaat-shibir-nanak

বাংলা দর্পণ : আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, জামায়াত শিবিররা সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনকে হত্যার চক্রান্ত করছিল। লিটন দীর্ঘদিন ধরে জামায়াত-শিবিবের কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদ করছিলেন। কিন্ত শেষ রক্ষা হলো না। এই জামায়াত-শিবির তাকে হত্যা করল। রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ময়নাতদন্তের পর লিটনের মরদেহ বেলা ১১টার দিকে ঢাকায় নেওয়া হবে। আগামীকাল সকাল ১০টায় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিব হবে। পরে বাদ আসর সুন্দরগঞ্জে তার জানাজার নামাজ শেষে মরদেহ দাফন করা হবে।

এর আগে সকাল ৯টার দিকে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের একটি প্রতিনিধি দল রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পৌঁছেন। এখানে এমপি লিটনের মরদেহের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হচ্ছে।

প্রতিনিধি দলে আছেন, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সারাধণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আওয়ামী লীগের রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সংসদ সদস্য এবিএম মোজাম্মেল হক, সংসদ সদস্য মাহবুব আরা গিনিসহ স্থানীয় নেতারা।

শনিবার সন্ধ্যায় মোটরসাইকেলে করে ৩ যুবক দেখা করার কথা বলে এমপি লিটনের সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের শাহবাজ গ্রামের নিজ বাড়িতে প্রবেশ করে। এ সময় তিন যুবকের দুজন এমপির সঙ্গে দেখা করতে যায় এবং এক যুবক মোটরসাইকেলে থাকে। এর কিছুক্ষণ পর ওই দুই যুবক এমপিকে লক্ষ্য করে পরপর কয়েক রাউন্ড গুলি করে মোটরসাইকেলে পালিয়ে যায়। এমপিকে গুরুতর অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ (রমেক) হাসপাতালের নিয়ে গেলে ডাক্তাররা দ্রুত তাকে অপারেশন থিয়েটারে নেন। পরে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।