গাভী পালন করে স্ববলম্বী শাহিনুর বেগম

kalapara-pic1-shahinur-begum-cow-frme-23-12-2016

বাংলা দর্পণ : পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় গাভী পালন করে শাহিনুর বেগমের ভাগ্য বদলে গেছে। এখন তার সংসারে এনে দিয়েছে স্বচ্ছলতা। কিছুদিন আগেও ছেলে মেয়ে নিয়ে কখনো একবেলা কিংবা দু’বেলা আবার কোনদিন উপোষ পেটে কেটে যেত দিন। স্বামীর অসুস্থতায় সংসারে নেমে আসে উপার্যনহীনতার হতাশা। প্রতিবেশী ও স্বামীর পরামর্শকে কাজে লাগিয়ে বে-সরকারি উন্নয়ন সংস্থা মুসলিম এইডে’র ঋণের টাকা নিয়ে শুরু করে গাভী পালন। আর বদলে যেতে থাকে তার ভাগ্যের চাকা। আজ শাহিনুর বেগম গভীর খামার করে স্ববলম্বী হয়েছে। তার খামার সকলে কাছে পরিচিত।

জানা গেছে, উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের পাখিমারার রোসনাবাদ গ্রামের দিনমজুর স্বামী সোবাহান মিয়ার স্ত্রী শাহিনূর বেগম সারাদিনের কর্মকান্ত, অসহায় স্বামীর মুখ তাকে বেশি ব্যাথিত করে তুলে। তার ইচ্ছে শক্তিকে কাজে লাগিয়ে ওই গৃহবধু বাড়ির অঙ্গিনার জমিতে শুরু করেন সবজি চাষ। কিছু টাকা জমিয়ে একটি গাই বাছুর গরু কিনে শুরু করেন লালন পালন। প্রত্যাশা তার আরোও বেড়ে যায়। তিনি যোগাযোগ করেন ইসলামিক উন্নয়ন ব্যাংক (আইডিবি) এর অর্থায়নে পরিচালিত মুসলিম এইডের স্থানীয় শাখায়। সেখান থেকে প্রথমে ১০ হাজার টাকা ঋণ একটি গাভী ক্রয় করেন। গাভীর দুধ বিক্রি ও আরোও দেড় লক্ষ টাকা সুদ মুক্ত ঋণ নিয়ে বেশ কয়েকটি গাভী ক্রয় করে তৈরি করেন খামার। তার খামার দেখে আশপাশের গ্রামের গাভী পালন শুরু করেছেন অনেকেই।

kalapara-pic2-shahinur-begum-cow-frme-23-12-2016

শাহিনুর বেগম বলেন, এহন আর না খাইয়া থাহিনা। এহন টাহার লইগ্গা চিন্তা করা লাগেনা। মাইয়া-পোলারে লেহাপড়া করাই। মাইয়া ফাইভে আর পোলা নয় ক্লাসে পড়ে।

মুসলিম এইড’র কলাপাড়া শাখা ব্যবস্থাপক মো.আমিনুল ইসলাম বলেন, আমরা মধ্যবিত্ত ও নি¤œ-মধ্যবিত্ত মানুষের মাঝে সুদ মুক্ত ঋণ সহায়তা দিয়ে আত্মকর্মসংস্থান তৈরি এবং সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে। পাশাপাশি বেকারত্ব দূরীকরণের মাধ্যমে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে সমৃদ্ধ করতে সাধারণ মানুষকে কর্মমূখী করে আত্মনির্ভশীল করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এরই ধারাবাহিকতার একটি অংশ শাহিনুর বেগম। আমাদের সামান্য সহযোগিতা আর শাহিনুর বেগমের ঐকান্তি প্রচেস্টা তাকে সফল করে তুলছে।